এড়িয়ে চলুন অদ্ভূত সাজগোজ, হয়ে উঠুন অনন্য

strange gupপোশাকের সাথে সাজগোজ এমন একটি উপাদান যা আমাদের সুন্দর আর রুচিশীল করে তোলে। আবার এই দুয়েরই ভুলভাল ব্যবহার আমাদের অদ্ভুত বানিয়ে দেয়। আসুন পরিচিত হই কিছু ভুল সাজগোজের সাথে যা আমাদের কিম্ভূতকিমাকার করে তোলে।

পুরুষদের জন্য তৈরি পোশাক পরাঃ
প্রকৃতিগত ভাবেই পুরুষ আর নারীদের শারীরিক গঠন সম্পূর্ণ আলাদা। সেখানে আপনি যদি পুরুষের জন্য তৈরি কোন পোশাক পরেন তাহলে আপনাকে ভীষণ অদ্ভুত দেখাবে। আপনার যদি জিন্স বা টিশার্ট পরতে ভালো লাগে সেক্ষেত্রে আপনি মেয়েদের জন্য বানানো জিন্স, টিশার্ট পড়তে পারেন। তাতে আপনার সৌন্দর্য অনেকখানি বাড়বে।

অতিরিক্ত টাইট পোশাক পরাঃ
আমাদের অনেকের ধারণা যে টাইট জামাকাপড় আমাদের সুন্দর করে তোলে। এটি একদম ভুল ধারণা। টাইট পোশাক আমাদের স্বাভাবিক শারীরিক গঠন বিকৃত করে দেয়। তবে এটা সত্যি যে কিছু অতিরিক্ত ঢোলাঢালা পোশাকও দেখতে বেমানান লাগে। মনে রাখবেন আপনি যা পরে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন তাতেই আপনাকে মানাবে। তাই নিজের দৈহিক গড়ণের সাথে মানানসই পোশাক পড়ুন।

অতিরিক্ত রঙ্গিন পোশাক পরাঃ
দেখতে চোখে লাগে এই রকমের কটকটে রঙের পোশাকও আমাদের অদ্ভুত করে তোলে। এর মানে এই নয় যে উজ্জ্বল রঙের পোশাক পরা যাবেনা। অবশ্যই উজ্জ্বল রঙের পোশাক পরা যাবে তবে সেটা সময় বুঝে। যেমন আপনি কোন অনুষ্ঠান বা কোন পার্টিতে যাচ্ছেন তখন আপনি উজ্জ্বল রঙের পোশাক অনায়াসে পরতে পারেন। ঠিক তেমনই কোন ঘরোয়া অনুষ্ঠান বা সামাজিক কোন কাজের জায়গায় হালকা রঙের পোশাক পরাই উত্তম।

অতিরিক্ত গহনা বা স্টাইলিস জুয়েলারি পরাঃ
যেখানে আপনি খুব সাধারণ একটি পোশাক পরে আছেন সেখানে তার সাথে একগাদা গহনা পরেন তাহলে নিশ্চয় আপনাকে দেখতে দৃষ্টিকটু লাগবে। আবার আধুনিকতা দেখাতে গিয়ে প্রয়োজনের অতিরিক্ত স্টাইলিশ জুয়েলারি আপনাকে অদ্ভুত করে তোলে। এ ব্যাপারটির প্রতি লক্ষ্য রাখুন।

মেকআপ ও রুজের অতিরিক্ত ব্যবহারঃ
মেকআপ, রুজ ও অন্যান্য প্রসাধন সামগ্রী আমাদের সৌন্দর্য বাড়াতে ব্যবহার করা হয়। তবে এ ক্ষেত্রেও অতিরিক্ত ব্যবহার আমাদের কুৎসিত দেখায়। যাদের গায়ের রং কালো তারা যদি ভাবেন যে একটু বেশী মেকআপ আপনাকে ফর্সা দেখাবে তবে এটা ভুল ধারনা। বরং এটা আপনাকে অদ্ভুত করে তুলবে।

স্বাভাবিক যে সৌন্দর্য আপনার মধ্যে আছে তাতেই আপনি বেশী সুন্দর। তারপরও আমাদের নিজেদের সাজিয়ে গুছিয়ে রাখতে হয়। সময়ের প্রয়োজনে পোশাকেও আনতে হয় ভিন্নতা আর তাই আমাদের সাঁজ পোশাকের ব্যাপারে আরো একটু সতর্কতা দেখাতে হবে। যাই পরি বা ব্যবহার করি সেটা যেন আমাদের জন্য সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়।


লেখাটি সম্পর্কে আপনার মতামত কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে অনুরোধ করছি। পরামর্শ.কম এর অন্যান্য প্রকাশনার আপডেট পেতে যোগ দিন ফেইসবুক, টুইটার, গুগল প্লাসে অথবা নিবন্ধন করুন ইমেইলে।